চন্দ্রগ্রহণ, শুকতারা ও মহামারি

Share this article
চন্দ্রগ্রহণ, শুকতারা ও মহামারি একই সূত্রে গাঁথা

পৃথিবীর বুকে সূর্যের যেমন প্রত্যক্ষ প্রভাব আছে চাঁদেরও তেমন আছে পরোক্ষ প্রভাব। জোয়ার-ভাটা থেকে শুরু করে বৃক্ষের বেড়ে উঠা, ফলের রঙ ইত্যাদি অনেক কিছুতেই চাঁদ-সূর্যের প্রভাব বিদ্যমান। প্রভাব যেমন আছে, এদের কুপ্রভাবও আবার আছে। সূর্যের অতিমাত্রার রশ্মির কথা তো স্বীকৃত। পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়া রোগ ব্যাধির পিছনেও এসবের প্রভাব আছে বলে প্রাচীন ইসলামি চিন্তকরা লিখে গেছেন। ইবনে তাইমিয়া বলেন- পৃথিবীতে সূর্যের বেশ কয়েক রকমের প্রভাব কাজ করে। এবার একটা হাদীস দেখবো যা খুবই ভিন্নরকম কিছু তথ্য দিচ্ছে-

মা আয়েশা (রা) বলেন- একদিন রাসূলুল্লাহ (স) আমার হাত ধরে চাঁদের দিকে ইশারা করে বললেনঃ “এটার অনিষ্ট থেকে আল্লাহর কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করিও, এটাই হলো “গাসেক্ব” (গ্রাসকারী) যখন এটা ঢেকে যায়।“

( তিরমিযিঃ ৩৩৬৬, আহমাদঃ ২৫৮৪৪, নাসাঈঃ ১০১৩৭)

ইবনে কাসির (রহঃ) সূরা ফালাক্বের তাফসীরে “গাসেক্ব” নিয়ে বলেন- গাসেক্ব হলো ‘শুকতার’র অস্ত বা পতন। শুকতারার অনুপস্থিতিকালে বিষক্রিয়া ও মহামারী ছড়িয়ে পড়ে।
(তাফসীরে ইবনে কাসীরঃ ৪/৫৭৩)

অনুরূপ ইবনে জারীর তাবরীও আবু হুরাইরাহ (রা) থেকে বর্ণনা করেন যে, গাসেক্ব হলো তারকা। যার অনুপস্থিতে মহামারী ও বিষক্রিয়া ছড়িয়ে পরে আর এর উদয়ে এসবের সমাপ্তি ঘটে।

অনেক সালাফদের মতে চাঁদ ও শুকতারার এসকল প্রভাব থাকার কারনে ইসলামে নতুন চাঁদ দেখলে আল্লাহর কাছে নিরাপত্তার দোয়া করার মত সুন্নাহ প্রচলিত আছে। নতুন চাঁদ দেখার দোয়ার মধ্যেও আল্লাহ নিরাপত্তা, শান্তি ও মুক্তির প্রার্থনা নিহিত রেখেছেন। নতুন চাঁদ দেখার দোয়া-

“হে আল্লাহ! আপনি আমাদের জন্য এই চাঁদকে নিরাপত্তা ও ঈমান, শান্তি ও ইসলামের সঙ্গে উদিত করুন। আল্লাহই আমার ও তোমার রব।”
(তিরমিজি: ৩৪৫১)

এছাড়া রাসূলুল্লাহ (স) প্রত্যেক চন্দ্রমাসের ১৩/১৪/১৫ তারিখ রোজা রাখতেন যখন চাঁদ তার পূর্ণরূপে প্রকাশ পায়। এই দিনগুলিতে বলা হয় আয়্যামুল বীদ্ব (সফেদ রাত্রি)।

অনেকের মতে উপরে উল্লেখিত হাদিস থেকে উদ্দেশ্য চাঁদে যখন গ্রহণ লাগে বা অন্য কোনো কারণে চাঁদ তার প্রকৃত রূপ হারিয়ে নিষ্প্রভ হয়ে যায় তখন তা অধিকতর অনিষ্টের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা বলতে পারবেন এই সময়ে চাঁদ বা শুকতারার অবস্থান কেমন।

লেখককে ফেসবুকে Follow করুন

আরেকটি রহস্যময় হাদিস সম্পর্কে জানুন এই লিঙ্কে

Share this article